হাইকমিশনার ও অ্যাম্বাসেডর এর পার্থক্য কি?

আপনারা অনেকেই হয়তো কখন শুনেছেন অমুক দেশের হাইকমিশনার বা অমুক দেশের অ্যাম্বাসেডর। দুটোই বিদেশি রাষ্ট্রদূতকে বোঝায়। কিন্তু হাইকমিশনার কাদের বোঝায়, আর অ্যাম্বাসেডর কাদের বোঝায়? হাইকমিশনার ও অ্যাম্বাসেডর এর পার্থক্য কি? এসকল প্রশ্ন যদি আপনার মনে এসে থাকে সেক্ষেত্রে সুখবর। আমরা এবার আপনার মনে জিজ্ঞাসা মেটাতে চলেছি।

হাইকমিশনার ও অ্যাম্বাসেডর এর পার্থক্য কি?

প্রকৃতিপক্ষে, হাইকমিশনার ও অ্যাম্বাসেডরের মধ্যে আলাদা কোন পার্থক্য নেই। বিদেশি কোনো দেশের রাষ্ট্রদূতকে হাইকমিশনার বা অ্যাম্বাসেডর বলা হয়। তবে দেশ ভেদে এই দুটি পদের আলাদা নামকরণ হয়েছে। যখন একটি কমনওয়েলথ ভুক্ত দেশের মধ্যে আরেকটি কমনওয়েলথ ভুক্ত দেশ তাদের রাষ্ট্রদূত পাঠায়, তখন সেই রাষ্ট্রদূতকে হাইকমিশনার বলে।

কমনওয়েলথ ভুক্ত দেশগুলোর মধ্যে যুক্তরাজ্য, ভারত, পাকিস্তান, বাংলাদেশ, কানাডা ইত্যাদি রয়েছে। তাই বাংলাদেশে নিযুক্ত কানাডার রাষ্ট্রদূতকে হাইকমিশনার বলা হবে। ঠিক তেমনি কানাডায় নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতকেও হাইকমিশনার বলা হবে।

হাইকমিশনার ও অ্যাম্বাসেডর এর পার্থক্য কি?

আবার জাতিসংঘ ভুক্ত দুটি দেশের মধ্যে প্রধান রাষ্ট্রদূত হচ্ছে অ্যাম্বাসেডর। জাতিসংঘের একটি সদস্য রাষ্ট্রের যদি অন্য একটি জাতিসংঘ ভক্ত রাষ্ট্রে রাষ্ট্রদূত পাঠানো হয়, সেক্ষেত্রে সেই রাষ্ট্রদূতকে অ্যাম্বাসেডর বলা হবে। যেমন বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র মেক্সিকো, কানাডা, জাপান, ইতালি, জার্মানি ইত্যাদি।

নতুন জিজ্ঞাসা অনার্স ও ডিগ্রির মধ্যে পার্থক্য কি?

জাতিসংঘ ভুক্ত রাষ্ট্র জার্মানিতে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতকে অ্যাম্বাসেডর বলা হয়। ঠিক তেমনি বাংলাদেশে নিযুক্ত জার্মানির রাষ্ট্রদূতকেও অ্যাম্বাসেডর বলা হয়।

মূলত হাইকমিশনার ও অ্যাম্বাসেডর একটি পদ, যা কোনো দেশে নিযুক্ত অপর একটি দেশের সর্বোচ্চ রাষ্ট্রদূতকে বোঝায়। এটি একটি পদ মাত্র, কিন্তু একই পদের দুটি আলাদা নামকরণ করা হয়েছে। যে সকল দেশ পূর্বে ব্রিটিশ সাম্রাজ্যের অধীনে ছিল, তারাই কমনওয়েলথ ভুক্ত দেশ। কমনওয়েলভ ভুক্ত দেশগুলোর রীতি অনুযায়ী যখন এক কমনওয়েল দেশ অন্য এক কমনওয়েলভ ভুক্ত দেশকে রাষ্ট্রদূত পাঠান সেক্ষেত্রে তাদের হাইকমিশনার বলা হবে। আশা করছি, এখন হাইকমিশনার ও অ্যাম্বাসেডর এর পার্থক্য কি সহজেই বুঝতে পেরেছেন।

আরো পড়ুন পাহাড় ও পর্বতের মধ্যে পার্থক্য কি?

এখানে এটাও বলে রাখা ভালো যে, শুধুমাত্র দুইটি দেশ যদি কমনওয়েলথ ভুক্ত হয়ে থাকে সেক্ষেত্রে উভয় দেশের সর্বচ্চো রাষ্ট্রদূতকে হাইকমিশনার বলা হবে। কিন্তু দুই দেশের মধ্যে একটি বা একটিও যদি কমনওয়েলথ ভুক্ত দেশ না হয়, সেক্ষেত্রে আমরা সেই দেশ দুটির সর্বোচ্চ রাষ্ট্রদূতকে অ্যাম্বাসেডর বলবো।

প্রশ্নের উৎস

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে খ ইউনিট ২০১৯-২০২০ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় হাইকমিশনার ও অ্যাম্বাসেডর এর পার্থক্য কি প্রশ্নটি এসেছিল। এই প্রশ্নটি মূলত চাকরি নিয়োগ পরীক্ষার ভাইবা অংশে করা হয়। পাশাপাশি ব্যক্তিজীবনেও প্রশ্নটির উত্তর জানা জরুরি।

তথ্যসূত্র উইকিপিডিয়া

Leave a comment