বাংলাদেশ রেলওয়ের সর্ববৃহৎ কারখানা কোথায়?

প্রশ্ন: বাংলাদেশ রেলওয়ের সর্ববৃহৎ কারখানা কোথায়?

সঠিক উত্তর: সৈয়দপুরে

বাংলাদেশ রেলওয়ের সর্ববৃহৎ কারখানা কোথায়

সৈয়দপুর

সৈয়দপুর বাংলাদেশের রংপুর বিভাগের প্রশাসনিক জেলা নীলফামারীর একটি উপজেলা হিসেবে পরিচিত। কিন্তু এটি উপজেলা হলেও সৈয়দপুর তার জেলা শহরের চেয়েও উন্নত এবং বড়। সৈয়দপুরে একটি সেনানিবাস, একটি আঞ্চলিক বিমানবন্দর ও বাংলাদেশ রেলওয়ের সর্ববৃহৎ কারখানা অবস্থিত। সৈয়দপুর থেকে উত্তরবঙ্গের বৃহত্তম দুটি জেলা রংপুর ও দিনাজপুর অনেক কাছাকাছি অবস্থিত। সৈয়দপুরকে উত্তরবঙ্গের শিল্প উন্নত অঞ্চল হিসেবে বিবেচনা করা হয়। সৈয়দপুরেই উত্তরবঙ্গের বৃহত্তম বিহারী ক্যাম্প অবস্থিত।

আরো পড়ুন রেলওয়ে স্টেশন ও জংশনের মধ্যে পার্থক্য কি?

বাংলাদেশ রেলওয়ের সর্ববৃহৎ কারখানা কোথায়

বাংলার বুকে রেলওয়ের যাত্রা শুরু হয় সেই ব্রিটিশ আমলেই। ব্রিটিশরা বাংলার বিভিন্ন অঞ্চল থেকে ফসল, পণ্য ও ধন-সম্পদ স্থানান্তরিত করার জন্য ব্যাপক রেলওয়ে লাইন স্থাপন করে। এছাড়া তখন থেকেই রেলওয়ের জনপ্রিয়তা বাংলার মানুষের কাছে বৃদ্ধি পেতে থাকে। যার কারণে রক্ষণাবেক্ষণ, মেরামত ও বগি নির্মাণের জন্য ব্রিটিশরা বাংলার একটি রেলওয়ে কারখানা স্থাপন করার সিদ্ধান্ত নেয়। আর এই কারখানাটি স্থাপন করা হয় নীলফামারী জেলার সৈয়দপুরে।

১৮৭০ সালে সৈয়দপুরে যখন রেলওয়ে কারখানাটি স্থাপন করা হয় তখন থেকেই এই অঞ্চলে ব্যাপক কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হয়। যার কারণে এই অঞ্চলে বাড়তে থাকে লোকালয়। এখনও সৈয়দপুরে বেশিরভাগ মানুষই বিভিন্ন রেলওয়ে কার্যক্রমের সাথে সম্পর্কযুক্ত। বলা হয়ে থাকে এই কারখানাটির জন্যই সৈয়দপুর এত উন্নত একটি অঞ্চলে পরিণত হয়েছে।

বাংলাদেশে শুধুমাত্র দুটি রেলওয়ে কারখানা আছে। যার মধ্যে একটি সৈয়দপুরে, অপরটি চট্টগ্রামের পাহাড়তলীতে। কিন্তু দুটি কারখানার মধ্যে সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানা বৃহত্তম। এই কারখানাটির আয়তন ১১০ একর। বর্তমানে বাংলাদেশ সরকার এই কারখানাটিকে আরো আধুনিক করে গড়ে তোলার জন্য কারখানাটির আয়তন বৃদ্ধি করার পরিকল্পনা নিয়েছে।

তাই, প্রশ্ন যদি করা হয়, বাংলাদেশ রেলওয়ের সর্ববৃহৎ কারখানা কোথায় অবস্থিত? সেক্ষেত্রে আপনার উত্তর হবে নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলায় অবস্থিত।

সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানা বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ রেলওয়ে কারখানা হলেও আধুনিকতার ছোঁয়া এখনো পায়নি। কারখানাতে ব্যবহৃত সকল যন্ত্রাংশ বহুকাল আগেই মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে গেছে এবং বর্তমানে এগুলো ব্যবহারও আর করা হয় না। বৃহত্তম এই কারখানায় বেশিরভাগ অংশ এখন পরিতক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছে।

তবে বাংলাদেশ সরকার ইতিমধ্যেই কারখানাটির জন্য বিভিন্ন আধুনিক যন্ত্রপাতি ক্রয় করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আশা করা যাচ্ছে, এই কারখানাটি আধুনিকভাবে গড়ে তোলা হলে বাংলাদেশ নিজেই রেলওয়ের জন্য বগি নির্মাণ করতে পারবে, এমনকি বিদেশের রপ্তানিও করতে পারবে।

জেনে নিন বাংলাদেশের বৃহত্তম দ্বীপ কোনটি?

প্রশ্নের উৎস

আজকের প্রশ্নটি হচ্ছে, বাংলাদেশ রেলওয়ের সর্ববৃহৎ কারখানা কোথায়? এই প্রশ্নটি এর আগেও বিভিন্ন চাকরি পরীক্ষা, ব্যাংক নিয়োগ পরীক্ষা, এমনকি বিসিএস পরীক্ষাতেও আসতে দেখা দিয়েছে। তবে বাংলাদেশ রেলওয়ে প্রতিনিয়তই বিভিন্ন পদে চাকরি নিয়োগ পরীক্ষার আয়োজন করে থাকে। এই সকল পরীক্ষায় রেলওয়ে বিষয়ক এই প্রশ্নটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

তথ্যসূত্র উইকিপিডিয়া

Leave a comment